Take a fresh look at your lifestyle.

আমাকে মুক্তি দাও

485

 

মুক্তি দাও আমায়!
এ মায়ার গুহা আমার অনূকূলে নয়।
ভুল করেই এসেছিলাম ভুলে।
নিয়ে যাচ্ছি কিছু স্মৃতি,
ফেলে যাচ্ছি কিছু না বলা অনুভব।
দিয়েছিলাম অসমাপ্ত ভালোবাসা,
সেই ভালোবাসার দায়ে আজ দায়ী আমি।
ভালোবাসা বোঝেনা ভুল, বোঝেনা ঠিক,
তাইতো মন ছোটে আজ ভুলের টানে।
এসেছিলাম স্রোতের অনুকূলে,
তবে কেন আজ বাইছি উজানে?

আমার আমিতে তুমিটা বেঁধেছিলে ঘর!
ভেবেছিলাম আপন, বেঁধেছিলাম মায়ায়, বুঝিনি তুমি পর।
ভালোবাসার দাবি, হৃদ অধিকার নিয়ে চলেছিলাম পথ,
কাঁটার আঘাতগুলো বিঁধেছিলো বুকে,
সয়েছি নিরবে, রয়েছি নিভৃতে, ছিলে বলে পাশে তাই।
অস্তিত্বটা ঠিকই ছিলো পাশে, অদৃশ্যটা ছিলো দূরে,
ভেবেছিলাম তারে টানিবো পাশে, অদৃশ্য মায়ার জোরে।
ভাবনা ছিলো ভুল,
ভুলেই গিয়েছিলাম,
আমি ভুল মায়ার গুঁহায় করেছিলাম প্রবেশ।

তার জন্য কেন কাঁদি? কেন বাঁধি জ্বালা বুকে?
সাগরের বালুকায় স্বপ্ন এঁকেছি,
সেটা তো জলে ধুয়ে যাবেই!
আমি জানি, আমার বুক পোড়া ঘ্রাণে তুমি পারফিউম বানাবে।
মাখবে সারা গায়, ছড়াবে ঘ্রাণ লোকালয়ে।
জানুক না সবাই, পুড়ে যাচ্ছে কোন এক বুক নিরালায়!
বুক পোড়ার অবশিষ্ট, বাতাসে উড়িয়ে দিয়ে,
আড়ালে যবো লুকিয়ে।
কোন এক নির্জন জনমানব ও জন্তুহীন শূন্যলয়ে।
যেখানে থাকবে হারানোর বেদনা, আপন কষ্ট, কিছু জামকালো স্মৃতি।
তাদের সাথেই গড়ব নতুন বসতি।
আমি মুক্তি চাই, আমাকে মুক্তি দাও।

 

রাজিবুল হাসান দুরন্ত- কবি, সাহিত্যিক ও এডমিন চেতনায় সাহিত্য   

Leave A Reply

Your email address will not be published.