Take a fresh look at your lifestyle.

ভার্চুয়ালের মায়াজাল

372

 

পাগলামি হোক কিংবা অদ্ভুত খেয়াল
তারই ধারাবাহিকতার নতুন এপিসোড –
দেখি না অনলাইন সাহিত্যের কতো গ্রুপ,
কী তাদের কার্যক্রম, কেমন-ই বা রূপ।
বিনীত খদ্দের সেজে ঢু মারি সুরম্য বিপনিতে,
কারও দরজা বন্ধ, কোনোটা ভেজানো,
কেউবা আলস্য ভেঙে খুলছে শেকল,
কেউ বাসি ফুল সরিয়ে নতুন ফুল সাজাচ্ছে।

আমি দৈনন্দিন হকারদের কায়দায় কবিতার অর্ঘ্য
বিলাই প্রত্যেকের উদার দুয়ারে বিরামহীন।
কেউ সহসা ছো মেরে অন্তরঙ্গ টেবিল সাজায়,
কেউ সাগ্রহে অথবা অনাগ্রহে লৌকিক নয়ন বুলায়
কেউ অনুগ্রহ করে খোঁপায় গুঁজে দেয়
বেনারসি ফুলের ভারিক্কি বিশেষণ ;
কেউ বদান্যতায় ভেসে গিয়ে লেখে – অসাধারণ !
কেউ কম্পিউটারের ছিমছাম মোড়কে
সনদের আটপৌরে রেকাবি সাজাতে ব্যাস্ত হয়।
কারও গুরুচণ্ডালী দোষ চারা দেয় অসচেতনতায়
অহেতুক, অযৌক্তিক বাক্য বিন্যাসের পঞ্চ ভূতে
নির্মম প্যাকেজ মন্তব্যের ধারালো কিরিচে ফালাফালা করে
অনন্য কীর্তির স্বাক্ষর রাখে ভার্চুয়াল পৃষ্ঠায়।

আমি অতঃপর রাত্রি হলে আরও গভীরতর
নিদ্রার হরিদ্রা রস সেবনের নিমিত্তে
ধীরে ধীরে রাত্রির অরণ্যে প্রবেশ করতে থাকি।
আমার চেয়েও বড় উন্মাদ দেখেছি সে রাতে
একশত ষাট গ্রুপে পোস্ট দিল একসাথে ।

মোঃ নুরুল আলম – কবি ও লেখক 

Leave A Reply

Your email address will not be published.