Take a fresh look at your lifestyle.

পোস্টমার্টেম – ১১

162

 

তানিয়া ফোন করেছিলো। আগামীকাল ওর ফ্লাইটের টিকিট কনফর্ম করতে। বললো।
হঠাৎ ঢাকা?
ওর ভার্সিটির কিছু কাগজপত্র তোলা লাগবে। আমাদের বাসার সামনে দিয়েই যাবে এয়ারপোর্টে।
তুমি ও যাবে?
আরে না এয়ারপোর্ট পযর্ন্ত যাবো ওকে তুলে দিতে।তুমিও ইচ্ছা করলে যেতে পারো। দুর থেক বসে দেখবে। আমি বোর্ডিং পাশ শেষ করেই চলে আসবো।
আচ্ছা আমি আসবো।
চলো এবার ওঠা যাক। চলো।
পিয়াসাকে নামিয়ে শিহাব বাসায় এলো। রাতে ডিনার করে শুয়ে পড়লো।
পিয়াসা ফ্রেশ হয়ে ডাইনিং এ বসতেই বাবা মা দুজনেই পাশে এসে বসলো।
পিয়াসা ওনাদের দিকে তাকিয়ে বললো কিছু কি বলবে তোমারা?
হ্যাঁ একটু কথা ছিলো তোমার সাথে বলেই নীলা তরকারির চামচ দিয়ে একটা চিংড়ি মাছ পিয়াসার প্লেটে তুলে দিলো। জামিল সাহেব পত্রিকার পাতায় চোখ বুলাচ্ছেন।
পিয়াসার কিছুই বুঝতে বাকী রইলো না। তবুও বেশ উচ্ছাস নিয়েই বললো হ্যাঁ বলো।
পিয়াসার মা কিছু সময় চুপ করে থেকে বললো আজ তোমার রহিম চাচা এসেছিলেন। ওনার ছেলের জন্য তোমাকে চায়। বেশ টাকাওয়ালা মার্সিডিস বেঞ্চ গাড়ি চালায়। প্রতিমাসেই লন্ডন আমেরিকা যায়। ঢাকায় দুইটা বাড়ি। ইন্টারন্যাশনাল ব্যবসা ওদের। ছেলেটাও সুন্দর মাত্র দুই ভাইবোন।
এক নিঃশ্বাসে বলে ফেললেন। জামিল সাহেব বললেন তাছাড়া পিয়াসা ও লন্ডন থেকে ডিগ্রী আনতে কোন ঝামেলা হবে না বোধহয়।
পিয়াসা খেতে খেতে সব শুনে বললো তোমাদের পছন্দ হলে কথা দিতে পারো।
পিয়াসার বাবা জামিল সাহেব বললেন তো তুমি একটু পরিচিত হও মা। তোমার ওতো একটা মতামত আছে।
না বাবা লাগবেনা। আর তোমাদের পরিচিত। আর আমি মনে মনে ভেবেছিলাম তোমাদের ব্যবসায়ী ছেলেই দেখতে বললো।
পিয়াসার মা লক্ষ্য করলেন মেয়ের মুখটা আজ হাসি খুশি।
অথচ পিয়াসার হাসির অন্তরাল ছিলো শিহাবের সমকক্ষ কেউ না হয়। ভালোবাসা একটাই। সেটাই লালন করবে সে আমূত্য।
ভীষণ আনন্দ নিয়ে শিহাবের কাছে ফোন।
জানো শিহাব আমার বিয়ে।
শিহাব;এমন অবলীলায় কিভাবে বলা সম্ভব প্রিয়?
পিয়াসা; আমার পছন্দের ব্যবসায়ী ছেলে।
শিহাব; না পিয়াসা এ হয়না। তোমার মতো অদম্য মেধাবী আর ব্যবসায়ী।
সমীকরণ টা ভুল নয়তো?
পিয়াসা; আমাদের মাঝে আর মেধাবী লাগবে না।
তুমি শুধু দোয়া করো তোমার ভালোবাসা যেনো আমার প্রথম এবং শেষ পাওয়া হয়।
আচ্ছা শিহাব তুমি কি আমার বিয়েতে আসবে?
হ্যাঁ আবশ্যই যদি তুমি বা তোমারা চাও।
তুমি না আসলে আমি বিয়ের পিড়িতে বসবো না।
ঠিক আছে আগের দিন সন্ধ্যায় তুমি জানালার পাশে থেকো। যে কথা কখনো বলি ঐদিন বলবো তুমি শুনবে….

চলবে……

 

পারভীন আকতার পারু- সহ সম্পাদক,  চেতনা বিডি ডটকম। 

Leave A Reply

Your email address will not be published.