Take a fresh look at your lifestyle.

শিল্পীর সাহচার্যে কিছু ক্ষন/ সাক্ষাৎকার

100

 

আজ ইংরেজি নববর্ষের প্রথম দিন।
কলেজ থেকে বাসায় ফেরার পথে মনের অজান্তেই হঠাৎ বাইকের চাকা ঘুরে গেল।
বাইক থামলো ” কণ্ঠ শিল্পী এম এ খালেক” এর বাসায়।
পূর্ব দুয়ারী দরজার গা ঘেঁষে বাইক রেখে প্রবেশ করলাম শিল্পীর রুমে।
সালাম দিতেই তিনি হেসে উঠলেন।

আমিঃ কেমন আছেন আপনি?

শিল্পীঃ আলহামদুলিল্লাহ।

আমিঃ অনেক দিন পর দেখা হলো! চেতনায় সাহিত্য আপনার সম্পর্কে জানতে চাই?

শিল্পীঃ বলুন!

আমিঃ আপনার নাম কি?

শিল্পীঃ এম এ খালেক!

আমিঃ আপনার জন্ম?

শিল্পীঃ ১৯৫৪ সালে, রাজশাহীর বাগমারা – যোগীপাড়া( ডোখল পাড়ায়)

আমিঃ আপনার বাবা!

শিল্পীঃ শুকুর উদ্দিন মন্ডল, উনি মারা গেছেন।

আমিঃ এসএসসি কত সালে?

শিল্পীঃ আহসান গঞ্জ মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়, ১৯৭০

আমিঃ আপনি কি মুক্তি যোদ্ধা ছিলেন?

শিল্পীঃ জ্বি! তখন আমি ইন্টারে।

আমিঃ উপরের পড়াশোনা?

শিল্পঃ ১৯৭২ সালে এইচএসসি পাশ করি মোল্লা আজাদ ডিগ্রি কলেজ থেকে, বাংলায় অনার্স করি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে।

আমিঃ সংগীত জগতে কিভাবে এলেন?

শিল্পীঃ আমার ছোট মামা ইব্রাহিম হোসেন, উনি গান গাইতেন আর হারমুনিয়াম বাজিয়ে আমিও গান গাইতাম – তখন থেকে ভালো লাগা কাজ করতো।
পরে সুরবীনা রাজশাহীতে এটি পাকাপোক্ত হয় আরকি।

আমিঃ আপনার গানের গুরু কে?

শিল্পীঃ আব্দুল আজিজ বাচ্চু।

আমিঃ উনি বোধহয় এন্ড্রু কিশোরকে শেখাতেন!

শিল্পীঃ জ্বি! আমরা এক সাথে গান শিখেছি।

আমিঃ কোন ছবির গান দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু হলো?

শিল্পীঃ সৎ ভাই সিনেমা। ঐ সিনেমার নায়ক – রাজ রাজ্জাক।
নায়কের ইচ্ছেতে ঐ সিনেমার গান গাওয়া।

আমিঃ আপনার গানের সঙ্গী কে কে?

শিল্পীঃ রুনা লায়লা, সাবিনা ইয়াসমিন, বেবি নাজনীন, সামিনা চৌধুরী, এন্ড্রু কিশোর, আব্দুল হাদী, আব্দুল জব্বার, খুরশিদ আলম প্রমুখ।

আমিঃ বৈবাহিক জীবন?

শিল্পীঃ আশির দশকের শেষের দিকে শিল্পী রিজিয়া পারভীনকে বিয়ে করি।

আমিঃ সন্তান / পরিবারের অবস্থান?

শিল্পীঃ এক ছেলে জাররান আল খালেক প্রতীক, মায়ের সাথে ঢাকায় থাকেন। আমি গ্রামের বাড়ি থাকছি।

আমিঃ কোন কোন দেশ ভ্রমণ করেছেন?

শিল্পীঃ ইন্ডিয়া, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, কাতার, ইংল্যান্ড আট দশটি দেশে গিয়েছি গানের টানে।

আমিঃ অবসরে কি করেন?

শিল্পীঃ গান করি, বই পড়ি, হাটাহাটি, রেস্ট আরকি।

আমিঃ চেতনায় সাহিত্য সম্পর্কে আপনার মন্তব্য কি?

শিল্পীঃ শিল্প সাহিত্য সংস্কৃতির সঙ্গে সম্পৃক্তদের নিয়ে ভাবে চেতনায় সাহিত্য, তাই এ সৃজনশীল গ্রুপের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা রইলো।

আপনার সম্পর্কে জানতে পেরে ভালো লাগলো।
চেতনায় সাহিত্যের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা ও শুভকামনা রইলো ভাই।

– আপনাকে ও আমার হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা।

 

আব্দুল মতিন – সম্পাদক,  চেতনা বিডি ডটকম। 

Leave A Reply

Your email address will not be published.