Take a fresh look at your lifestyle.

ক্যান্সার পর্ব- এক

401

“ক্যান্সার” !! শব্দটি এত নিষ্ঠুর একটি শব্দ। যার নাম শুনলে আমরা যত বড় সাহসী ও শক্তিশালী ব্যাক্তি হইনা কেন অবশ্যই আমরা কম বেশি আৎকে উঠি। আর এই আৎকে ওঠা অস্বাভাবিক কিংবা কোনরূপ আদিখ্যেতিপনাও নয়। বিষয়টি এমন হয় যেমন কোন আপনজনের কিংবা প্রিয় মানুষটির মৃত্যুদন্ডাদেশ জারি হয়েছে এরকম কিছু মনে হওয়া অযুক্তিক কোন কিছুনা।। কিন্তু তারপরও আল্লাহর অশেষ কৃপায় অনেক সময় আমরা কেউ না কেউ এই নিষ্ঠুর হন্তার থাবা থেকে বেঁচে যেতেও পারি। সেটা হয়ত হাজারে অথবা তার বেশি সংখ্যার মধ্যে একজন বা দুইজন। তবে এই ফিরে আসার ক্ষেত্রে আল্লাহর অশেষ করুণাতো অবশ্যই, সেই সাথে যদি রোগটা প্রথম ধাপ (first stage) এ ধরা পড়ে যায় ও উপযুক্ত চিকিত্সা এবং পর্যাপ্ত সেবা ও মানসিক শান্তির পরিবেশ দেয়া হয়ে থাকে। এমন দেখেছি ক্যান্সার থেকে বেঁচে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে আবার হার্ট অ্যাটাক কিংবা ব্রেইন স্ট্রোক বা কোন দুর্ঘটনায় আনেকেই মারা গিয়েছেন। কিন্তু ক্যান্সার এমন একটা রোগ যা জীবনকে আক্রমণ করলে সবাই অন্তত জেনে যায় তার মৃত্যুর ডাকটা চলে এসেছে। আমি এ নির্মম বিষয়টি নিয়ে কিছু কথা কেন লিখছি? কারণ আমরা যারা এই মহা ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে এখনো বেঁচে আছি তাদের চারপাশে যারা আছেন তাদের করণীয় কি এই মানুষটির প্রতি। আর ভুক্তভোগীর কি করা দরকার তা একটু আধটু আমার নিজের অভিজ্ঞতা ও এ বিষয় নিয়ে অনেক ঘাটাঘাটি এবং অস্ট্রেলিয়ার একজন চিকিত্সকের লিখা “ক্যান্সার বিজয়” নামক একটি বই থেকে কিছু তথ্য বা পরামর্শের সাহায্যে কিছু লিখার সাহস নিলাম।
ইয়ান গালার নামের এই চিকিত্সকের “You can Conquer Cancer” (ক্যান্সার বিজয়) নামক বইটি আমি বাংলাদেশ থেকে প্রথমবার আমেরিকায় আসার সময় আমার ছোট ভাই (কাজিন) ফয়সাল আমাকে দিয়েছিল। আজ প্রায় চার বছরের ও বেশি সময় পরে হঠাৎ ওর দেয়া বইটির কথা আমার মনে হলো তাই বের করে পড়তে লাগলাম। বইটি অনেকটুকু পড়ার পর মনে হলো আমার মনে এত দিন থেকে যে বিষয়টি সম্বন্ধে কিছু লিখব ভেবেছি তা করতে হলে এই বইটির সাহায্যতো নিতে পারি। কারণ এই কঠিন ব্যাধিটি নিয়ে আমার লিখার ইচ্ছা থাকলেও যোগ্যতা তো এত নেই। তাই সাহস করতে পারছিলাম না। আজ বইটির আশ্রয়ে কিছুটা সাহস হলো । তাই ভাবলাম আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা ও অন্যান্য সবকিছু যা আমি মোকাবিলা করেছি তা যোগ করে লিখাটা শুরু করতে পারি । আর এই জন্যে বইটির উপহারদাতা ফায়সালকে অনেক ধন্যবাদ জানাই । যাক এবার আসল ব্যাপারটা নিয়ে কিছু কথা শুরু করি যদি সবাই অভয় দেন। হয়তবা আমার এই ক্ষুদ্র প্রয়াস থেকে খোব বেশি না হলেও আমরা যারা ক্যান্সার নামক মারোনাস্ত্রের আঘাত কাটিয়ে টিকে আছি কিংবা যারা এখনো এই আঘাতটির জখম নিয়ে বেঁচে থাকার চেষ্টা করছি তাদের জন্যে কিছুটা কাজে লাগতে পারে।

 

রওশন চৌধুরী – সহ সম্পাদক চেতনা বিডি ডটকম।

Leave A Reply

Your email address will not be published.