Take a fresh look at your lifestyle.

ক্যান্সার পর্ব – বাইশ

274

গত পর্ব শেষ করেছিলাম ব্লাড ক্যান্সার নিরাময়ের বিষয়ে আধুনিক গবেষকরা কি বলেছেন? আজ জেনে নেবো লাঞ্জ ক্যান্সার সম্পর্কে।
Lung বা ফুসফুস মানুষ এবং সকল মেরুদন্ডী প্রাণীর একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। আমাদের বুকের বাঁ পাশে হৃদপিন্ড এবং হৃদপিন্ডের দুপাশ জুড়েই রয়েছে ফুস্ফুসের অবস্থান। মানুষের দুইটি ফুস ফুস থাকে। যা শ্বাস-প্রশ্বাসের কাজে ব্যবহৃত হয়। এই শ্বাসযন্ত্রটির প্রধান কাজ হলো বাতাস থেকে অক্সিজেনকে রক্তপ্রবাহে নেওয়া এবং রক্তপ্রবাহ হতে কার্বন ডাই-অক্সাইডকে বাতাসে নিষ্কাশন করা। এই গ্যাস আদান-প্রদান করা হয় বিশেষায়িত কোষ দ্বারা তৈরী, খুবই পাতলা দেয়াল বিশিষ্ট লক্ষাধিক বায়ু থলির দ্বারা যাকে অ্যালভীওলাই বলে। ফুস্ফুস মস্তিষ্কে দূষিত বায়ু প্রবেশে বাধা দেয় এবং বিশুদ্ধ বায়ু প্রেরণে ভূমিকা রাখে। নাকের মাধ্যমে ঢুকে যাওয়া অপ্রয়োজনীয় বস্তুকে দেহের বাইরে বের করে দেয়।
ফুসফুস ক্যান্সার এক ধরণের ক্যান্সার যা ফুসফুসে শুরু হয়। এর ফলে ফুসফুসের টীস্যুগুলিতে অনিয়ন্ত্রিত কোষ বৃদ্ধি ঘটে। এই বৃদ্ধির ফলে মেটাস্ট্যাসিস, প্রতিবেশি টিস্যু আক্রমণ এবং ফুস্ফুসের বাইরে সংক্রামন ঘটাতে পারে। প্রাথমিক ফুসফুসের ক্যান্সারের অধিকাংসই ফুসফুসের কার্সিনোমা, যা ফুসফুসের এপিথেলিয়াল কোষগুলিতে ধরা পড়ে। ফুসফুসের ক্যান্সারে প্রতি বছর সারা বিশ্বে ১৩ লাখের বেশি লোকের মৃত্যু হয়।
সব ক্যান্সারই অসহ্য যন্ত্রনার ব্যাধি। এরমধ্যে ফুসফুসের ক্যান্সার খুবি ভয়ংঙ্কর আতংকের কারণ হয়ে থাকে। কারন ফুসফুস সুস্থ না থাকলে প্রথমতঃ আমাদের শ্বাস প্রশ্বাস নেয়া সম্ভব হবে না আর যতক্ষন নেয়া যাবে তা খুবই কষ্টের সাথে নিতে। আর ফুসফুসের ইনফেকশন কি যে কষ্টের তা চলতি বছরের শুরু থেকে কোভিড-১৯ (করোনা ভাইরাসের) এর আক্রমণে মৃত্যুর সংখ্যা থেকেই অনুমান করা যাচ্ছে।
লক্ষণসমূহঃ ফুসফুসের ক্যান্সার কিভাবে বুঝবেন তা নিয়ে একটু ধারণা নেয়া অবশ্য প্রয়োজন, তাই এবারে জেনে নেয়া যাক এই রোগের লক্ষণগুলো কি কি?
কাশিঃ এই রোগের প্রথম লক্ষণ হলো কাশি।প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ রোগীর ক্ষেত্রে ফুসফুসের ক্যান্সারের প্রাথমিক লক্ষন হিসেবে দেখা যায় কাশি। এ ক্ষেত্রে শুকনো অথবা ঘন ঘন কাশি হতে পারে, কাশির সাথে অতিরিক্ত কফ যেতে পারে, রাতের বেলা কাশিটা খুব বেশি হতে পারে।
কাশির সাথে রক্ত যাওয়াঃ কাশি বা থুথুর সাথে রক্ত যাওয়া এই ক্যান্সারের একটি অন্যতম লক্ষন। ধুমপায়ী পুরুষ/মহিলা রোগীদের এই লক্ষনটি বেশি দেখা যায়। ফুসফুসের কোন না কোন স্থানে বারবার ইনফেকশন হওয়াতেই এই ক্যান্সার হয়।

 

রওশন চৌধুরী – সহ সম্পাদিকা চেতনা বিডি ডটকম।

Leave A Reply

Your email address will not be published.