Take a fresh look at your lifestyle.

ক্যান্সার পর্ব- সাতাশ

283

গত পর্ব শেষ করেছিলাম লিভার ক্যান্সারের কারণ হিসেব হেপাটাইটিস একটি কারণ এবং এর লক্ষণগুলো দিয়ে। আজ অন্যান্য লক্ষগুলো নিয়ে একটু জানার চেষ্টা করবোঃ
সকল বয়সের ক্ষেত্রে লক্ষণসমূহঃ যেহেতু লিভার ক্যান্সার বিভিন্ন ধরণের ক্যান্সারের জন্য একটি ছাতা পদ। তাই কী ধরণের ক্যান্সার এর উপস্থিতির উপর তার লক্ষণ নির্ভর করে। সাধারণ লিভার ক্যান্সারের লক্ষণগুলির মধ্যে পাঁজরের নীচে ডানদিকে একগিরি বা ব্যথা অনুভুত হতে পারে, পেটে ফোলাভাব, ত্বকে হলুদ হওয়া, সহজ ক্ষত, ওজন হ্রাস এবং দুর্বলতা। লিভার ক্যান্সারের রোগীরা প্রায়ই পেটের ডান পাশে উপরের দিকে অথবা বুকের ঠিক নিচে মাঝ বরাবর ব্যথা অনুভব করেন যার তীব্রতা রোগী ভেদে বিভিন্ন রকম। সহজেই ক্লান্ত হয়ে পড়া, পেট ফাপা আর হালকা জ্বর জ্বর ভাব এ রোগের অন্য লক্ষণ। লিভার ক্যান্সার রোগীদের অনেকের জন্ডিস থাকে না, আর থাকলেও তা খুবই অল্প। রোগীদের খাওয়ায় অরুচি, অতিরিক্ত গ্যাস কিংবা কষা পায়খানার কমপ্লেন থাকতে পারে। কোন কোন সময় পেটে পানি থাকতে পারে, আবার কখনো কখনো নাও থাকতে পারে। Cholangiocarcinoma, ঘাম, পেটে ব্যথা, এবং লিভারের বৃদ্ধির সাথে সম্পর্কিত Hepatocellular carcinoma , পেটের ভর, পেটে ব্যথা, Emisis (বমি), রক্তাল্পতা, পিঠে ব্যথা, জন্ডিস, চুলকানি, ওজন হ্রাস এবং জ্বরের সাথে সম্পর্কিত। লিভারে যখন ক্যানসার হয় তখন লিভার অসবাভাবিকভাবে মোটা হতে থাকে। এমনও হয় এর সাইজ এত বড় হয় যে এটি তখন পেটের নীচে চলে আসে। তখন পেটের আকার ও অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পায়। আর লিভার অতিরিক্ত বড় হওয়ার ফলে এর কার্যক্ষমতা লোপ পেয়ে যায়। এবং তখন এই টিউমার বা ইনফেকশনটি প্রসা্রিত হয়ে শরীরের অন্য স্থানে ছড়িয়ে পড়ে। যেমন, ফুস্ফুসে, মস্তিস্কে অন্যান্য যেকোন অংগে ছড়াতে পারে। আর তখন ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে। রুগী উশৃংখল কর্মকান্ডও শুরু করতে পারে। যার বর্ণ্না জানাশুনা রোগীদের ক্ষেত্রে তাদের চিকিতসকদের কাছ থেকে জানতে পেরেছি (আমেরিকাতে)। তাই লিভার ক্যানসার সত্যিই এক ভয়াবহ ব্যাধি।
এছাড়া লিভারের ক্যান্সার লিভারের অন্যান্য কাঠামো যেমন পিত্ত নালী, রক্তনালী এবং প্রতিরোধক কোষ থেকেও আসতে পারে। পিত্ত নালীর ক্যান্সার কোলঙ্গিওকার্সিনোমা (Niche carcinoma) এবং কোলঙ্গিওসেলুলার সিস্টাডেনো কারকিনোমা (Niche cellular cystadenocarcinoma) প্রাথমিক লিভার ক্যান্সার হিসাবে থাকে। রক্তনালীর টিউমারগুলি Angiosarcoma (অ্যাঞ্জিয়োসরকোমা) এবং Hemangioidothelioma (হেম্যানজিওয়েডোথেলিওমা), Fetal sarcoma and fibro sarcoma (ভ্রূণ সারকোমা এবং ফাইব্রোসরকোমা) এক ধরণের সংযোগকারী টিস্যু যা Mesenchyme নামে পরিচিত প্রডিউসড টিউমার, কার্সিনয়েড টিউমার এবং লিম্ফোমাস। লিম্ফোমাস সাধারণত লিভারে ছড়িয়ে পড়ে অনুপ্রবেশ, তবে বিরল ক্ষেত্রে এটি লিভারের ভরও তৈরি করতে পারে। সব থেকে ঘন লিভার ক্যান্সার, প্রায় সব প্রাথমিক লিভার ক্যান্সারের 75% হিসাবে অ্যাকাউন্টিং, Hepatocellular carcinoma (HCC) (এটির নাম Hepatoma। এইচসিসি হ’ল লিভারের কোষ দ্বারা গঠিত ক্যান্সার, যা Hepatocytes নামে পরিচিত, এটি মারাত্মক হয়ে থাকে। লিভারের কোষগুলির দ্বারা গঠিত অন্য ধরণের ক্যান্সার Hepatoblastoma, যা বিশেষত অপরিণত লিভারের কোষ দ্বারা গঠিত । এটি একটি বিরল Malignant tumor যা প্রাথমিকভাবে শিশুদের মধ্যে বিকাশ লাভ করে এবং শিশুদের মধ্যে সমস্ত ক্যান্সারের প্রায় 1% এবং 15 বছরের কম বয়সী প্রাথমিক লিভারের ক্যান্সারের 79% হিসাবে থাকে বেশিরভাগ Hepatoblastoma ডান লবতে গঠন করে।
লিভারে পাওয়া অনেকগুলি ক্যান্সার সত্যিকারের লিভারেই উৎপন্ন হয় না। শরীরের অন্যান্য সাইটগুলি থেকে ও ক্যান্সারগুলি লিভারে Metastasis (স্থানান্তর) হয়ে থাকে। প্রায়শই, উৎসস্থলের স্থানটি Gastrointestinal tract । যেহেতু লিভার রক্তনালী এবং লিম্ফ নোডগুলির কাছে রক্ত ​​সমৃদ্ধ অঙ্গগুলির অনেকগুলি বিপাকক্রিয়াগতভাবে সক্রিয় থাকে (যেমন অগ্ন্যাশয়ের ক্যান্সার, পেটের ক্যান্সার, কোলন ক্যান্সার এবং কার্সিনয়েড টিউমারগুলি মূলত: পরিশিষ্ট), তবে স্তনের ক্যান্সার, ডিম্বাশয়ের ক্যান্সার, ফুসফুসের ক্যান্সার, Renal cancer (মূত্রাশয়), Prostate cancer (মূত্রথলির) থেকেও লিভারে ক্যান্সার হয়ে থাকে।

 

রওশন চৌধুরী- সহ সম্পাদিকা চেতনা বিডি ডটকম।     

Leave A Reply

Your email address will not be published.