Take a fresh look at your lifestyle.

পোস্টমার্টেম – ৭

128

 

আজ রবিবার।
শিহাব খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠে ছাদে গেলো। ছাদে বসে ওর প্রিয় মাধবীলতা গাছের নিচে।
এদিকে বাসার সবাই ব্যস্ত। আত্মীয়রা এক এক করে আসছে।
শিহাবের মায়ের মনটা আজ ভালো নেই। কেনো যেনো একটা চাপা কষ্ট গ্রাস করছে আজ। যথারীতি নিজে তৈরী হলো। এবার শিহাবকে খুঁজছেন।
শিহার ওর এক বন্ধু কে ফোন দিলো আসার জন্য। এর ভিতল ওল আম্মু এসে ডাক দিলো কি হলো বাবা তুমি এখনো রেডি হচ্ছোনা কেনো?
শিহাব নিচে নেমে শাওয়ার শেষে কালো একটা পাঞ্জাবী পরতে গেলো অমনি ওর মা এসে বললো আজ কালো পরোনা বাবা। একটা নতো গোল্ডেন ব্লেজার দিয়ে বললো এটা পরো। শিহাব সেটাই পরলো সাথে পিয়াসার বেধে দেওয়া সেই টাই আর ক্লিপ। যেনো কঠিন মায়ার সে বন্ধন কখনো খোলার না, ছিঁড়ে যাবার ও না।
ঠিক দশটায় ওরা রওনা হলো। মোট পাঁচটা গাড়িতে মোট বিশজন।
একটা গাড়িতে শিহাব ওর বন্ধু আর বাবা মা।
তিনঘন্টা লাগবে ওদের পৌঁছাতে।
গাড়িতে রবীন্দ্র সংগীত বাজছে শিহাবের মায়ের পছন্দ করা গান একের পর এক।
হঠাৎ বেজে উঠলো ” ও যে মানে না মানা ”
পিয়াসা কোন এক প্রোগ্রামে গেয়েছিলো গানটা ঐ অনুষ্ঠানের উপস্থাপক ছিলো শিহাব।
যথাসময়ৈ গাড়ি পৌঁছে গেলো। সবাই কনে দেখার জন্য ব্যস্ত হয়ে উঠেছে এদিকে পাত্রী পক্ষ চাইছে খাবার শেষ করে পাত্রী দেখে একবারেই পছন্দ হলে বিয়ে।
তাই হলো খাওয়া শেষ হলে পাত্রী দেখাদেখি শেষ হলো আংটি পরালো দু পক্ষ। এরপর বিয়ে শেষ হলো। বৌ তুলে নেওয়ার দিন হলো একমাস পর।
বিয়ে শেষ হলে শিহাবের বন্ধু সহ শিহাবকে রেখে বাকী সবাই চলে গেলো।
এদিকে পিয়াসা ছটফট করছে একটা ফোনের অপেক্ষায়।
পিয়াসার মায়ের চোখে আজ ঘুম নাই। মেয়েকে বারবার সময় দেওয়ার চেষ্টা করলেও মেয়ে দরজা বন্ধ করে ফোনটা হাতে নিয়ে টাইটানিকের ভায়োলিনের সুরে নিজেকে হারিয়ে ফেলেছে। দুএকবার হাসিমুখে মায়ের কাছে এসে বলে গেলো আমি ভালো আছি মা। কাল সকালে হাসপাতালে যেতে হবে অনেক কাজ। আমাকে একটু ঘুমাতে দাও ভোরে উঠতে হবে।
এদিকে শিহাব অস্থির হয়ে উঠেছে পিয়াসার সাথে একটু কথা বলার জন্য। কিন্তু সুযোগ পাচ্ছে না। ওর বন্ধুর কানে কানে কি যেনো বললো। এরপর বললো তোমারা কথা বলো আমি হাসপাতালে একটু ফোন করবো।
বলেই ফোনটা নিয়ে বারান্দায় চলে এলো। ফোন করলো পিয়াসাকে।
কি ছিলো ওদের সে রাতের কথা??
শুধু ভিতর থেকে শোনা গেলো। Take care you.

চলবে…..

 

পারভীন আকতার পারু – সহ সম্পাদক,  চেতনা বিডি ডটকম। 

Leave A Reply

Your email address will not be published.